কফি ওজন কমায়

বৈজ্ঞানিক জার্নালে প্রকাশিত গুরত্বপূর্ণ হেলথ টিপস

সকালে ঘুমে ঢুলু ঢুলু চোখ। এ সময় কফি না হলে চলে? কাজে মন বসছে না , ক্লান্ত লাগছে। এক কাপ কফি চাই- ই চাই। বন্ধুদের সঙ্গে অনেকদিন পর আড্ডা। সেটা কি কফি ছাড়া জমে? বাড়িতে অতিথি এসেছে অথবা ক্লায়েন্ট মিটিং। সামনে কফিটাই জুতসই। আবার বৃষ্টিস্নাত সন্ধ্যায় আরাম কেদারায় বসে ধোয়া তোলা কফিতে চুমুক দিয়ে স্মৃতিচারণের আনন্দটাই বা কেন বাদ পড়বে? এভাবে সময়ে- অসময়ে দিনে ৩/৪ কাপেরও বেশি কফি খাওয়া হয়ে থাকে। কফিতে কার্বোহাইড্রেট কম থাকলেও এতে রয়েছে শরীরের জন্য উপকারি ক্যালরী ও প্রোটিন যা ক্ষধাবৃত্তি কমিয়ে পূর্ণতার স্বাদ দেয়। একই সঙ্গে এটি ফ্যাট কাটিয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করে। তবেএর প্রভাব ভাল না খারাপ হবে তার অনেকটাই নির্ভর করে কফি কতটুকু, কতবার এবং কিসের সঙ্গে খাওয়া হচ্ছে তা উপর। তবে মূল খাবারের সঙ্গে পরিমিত কফি খেলে  সেটা অনুপূরক হিসেবে কাজ করে। কেননা দুধে কফির চাইতেও বেশী ক্যালরি থাকে। তাই অনেকেই ওজন কমাতে দুধের পরিবর্তে কফি খেয়ে থাকে। এক্ষেত্রে কফিকে খাবারের একটি অংশ হিসাবে নিতে হবে। তবে কফির সঙ্গে বাড়তি বিস্কিট, পাউরুটি, কেক বা ডিম খাওয়া এড়িয়ে যেতে হবে।