পরিমিত ভাত খেলে মেদ কমে

বৈজ্ঞানিক জার্নালে প্রকাশিত গুরত্বপূর্ণ হেলথ টিপস

শরীরে মুটিয়ে যাওয়ার মূল কারণ এমন ধারণা থেকে আমরা অনেকেই সুস্বাস্থ্যের আশায় রুটি বা বিকল্প খাবারের দিকে ঝুকে পড়ি । আমাদের দেশের মানুষ আজও মেদ হওয়ার পেছনে ভাত খাওয়াকেই দায়ী করেন। কিন্তু চীনের বাসিন্দারা দুই বেলা ভাত খেলেও তাদের শারীরিক গঠন হালকা-পাতলা থাকে। এর মূল কারণ তারা নিয়মিত সঠিক নিয়মে ভাত খান। আমাদের মত ভুড়ি ভোজন করেন না। কায়িক পরিশ্রম করেন। এ জন্য তাদের চর্বি বাড়ে না বরং কমে।

ভাতের পরিপূর্ণ পুষ্টি পেতে হলে অমসৃন চাল বেছে নিতে হবে। অমসৃন চালের উপর যে লারচে আবরণ থাকে সেটাই ভিটামিন-বি১। এতে স্বাদের পরিবর্তন না হলে প্রোটিন, ভিটামিন বি, মিনারেল ও ফাইবারের পরিপূর্ণ পুষ্টি পাওয়া যায়। এছাড়া এটি পরিপাকে সাহায্য করে এবং মেটাবলিজম বাড়ায়। বাসমতি চাল হতে পারে এর প্রকৃষ্ট উদাহরণ। ভাতে বিদ্যমান এ্যামাইনো এসিড লিভারের ফ্যাট কাটাতে সাহায্য করে। এজন্য ডায়াবেটিস রোগীরাও প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে ভাত খেয়ে থাকেন।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।