ঔষধও মুক্ত নয় ভেজাল থেকে:

খাদ্যে ভেজাল ও এর ক্ষতিকারক প্রভাব
ঔষধও  মুক্ত নয় ভেজাল থেকে:

ভেজালের বিষ শুধু খাদ্যপণ্যের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকছে না, বিষ ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে জীবন রক্ষাকারী ঔষধের মধ্যেও। পানি শুন্যতা রোধ করে জীবন রক্ষাকারী স্যালাইন পর্যন্ত ভেজাল মিশিয়ে বিষে পরিণত করা হয়েছে। এখনও ফুটপাতেই বিষময় ঔষুধের পসরা সাজিয়ে বসছেন ভেজাল হাতুড়ে ডাক্তাররা। খোদ রাজধানীতেই জীবন রক্ষাকারী মহৌষধ বেচাকেনা চলছে ফেরি করে। সরবরোগের মহৌষধ বিক্রির নামে মহানগর জুড়ে চলছে সীমাহীন প্রতারণা। রাজধানীর রাস্তা-ফুটপাত, মোড় ,বাজার, ট্রেন স্টেশন, লঞ্চ ও বাস টার্মিনালসহ দেড় শতাধিক স্থায়ী স্পট রয়েছে ঔষধ ফেরিওয়ালাদের। বেআইনিভাবে ফেরি করে বিক্রি করা তথাকথিত জীবন রক্ষাকারী ঔষধ ব্যবহারে রোগ নিরাময়ের পরিবর্তে তা আরও জটিল হচ্ছে। ক্যানভাসাররা কিডনিিএইডস এবং বিনা অপারেশনে অর্শ্ব ভগন্দরসহ নানারকম জটিল রোগ নিরাময়ের পূর্ণ নিশ্চয়তা দিয়ে থাকে। ঔষধ বিক্রির সময় হাতে হাতে তাদের নিজস্ব প্রচারপত্রও বিলি করে। দেশের বিভিন্ন স্থানে ‘অব্যর্থ মহৌষধের’ বেচাকেনা সবচেয়ে জমজমাট। এসব ব্যাপারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একজন কর্মকর্তা জানান, ঔষধ ফেরিওয়ালাদের বৈধ রেজিস্ট্রেশন বলতে কিছু নেই। কথিত মহৌষধ ব্যবহারে রোগ নিরাময় দুরের কথা বরং স্বাস্থের জন্য তা বড় ধরনের হুমকি হয়ে দাঁড়ায়। বিশেষ করে গরীব শ্রেণীর মানুষ এতে বেশী প্রতারিত হচ্ছে। এছাড়া এসব ঔষধ সেবনের কারনে রোগ আরও জটিল আকার ধারণ করে। এমনকি কোনো কোনো ক্ষেত্রে মৃত্যুর ঘটনাও ঘটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *