দুধ নয় পুরোটাই নকল :

দুধ নয় পুরোটাই নকল :

খাদ্যে ভেজাল ও এর ক্ষতিকারক প্রভাব
দুধ নয় পুরোটাই নকল :

শুধু ভেজাল দিয়ে ক্ষান্ত হচ্ছেন না এক শ্রেণীর ব্যবসায়ী, এবার নকল দুধ উৎপাদন ও বাজারজাত করছেন তারা। এই দুধ সংগ্রহে কোনো গাভীর প্রয়োজন পড়ে না , কষ্ট করে গড়ে তুলতে হয় না গবাদি পশুর খামারও । ছানার পানির সঙ্গে কেমিক্যাল মিশিয়ে সহজেই তৈরি করা হচ্ছে এমন “বিষ”। পরে খাটি দৃধ হিসেবে তা চালান হয়ে আসছে রাজধানীতে। দীর্ঘ সময় সতেজ রাখতে এতে মেশানো হচ্ছে ফরমালিন। জানা গেছে পানি গরম করে তাতে অ্যারারুট মিশিয়ে সহজেই নকল দুধ তৈরি করা যায়। তবে প্রযোজন পড়ে আরও কয়েক পদের রাসায়নিক পাউডারের। যা পানিতে মিশিয়ে একেবারে সাদা দুধের আকার ধারণ করে। খালি চোখে তা ধরা অসম্ভব। এর শিকার হচ্ছেন পূর্ণ বয়স্ক থেকেও শিশু। চিকিৎসকরা বলছেন কৃত্রিম উপায়ে তৈরি নকল দুধ পানে পেটের রোগে আক্রান্ত হওয়ার একশত ভাগ ঝুঁকি রয়েছে। এর প্রভাব পরতে পারে কিডনি বা লিভারের মতো অঙ্গ-প্রত্যংগেও। নকল দুধ তৈরির কারখানাগুলোতে ছানার ফেলনা পানি, খাবার পানি, থাইসোডা, পার অক্সাইড, ময়দা,ভাতের মাড় ও চিনি মিশিয়ে আগুনে ফোটানো হয় এবং পরে কাটিং ওয়েল ও এসেন্স মিশিয়ে দুধের সুবাস দেওয়া হয়। ধলেশ্বরী ঘাট থেকে নকল দুধের চালান পাঠানো হয় দুটি নামিদামি ডেইরি প্রজেক্টে। পরে ওই প্রজেক্টের প্লাস্টিক মোড়কে প্যাকেটজাত দুধহিসেবে বাজারে বাজারে পৌঁছে যায়। আইসিডিডিআরবি হাসপাতালের ডা. এস কে রায় জানান, রাসায়নিক মিশ্রিত এসব নকল দুধ পানের কারনে মানবদেহে ডায়রিয়া, জটিল পেটের পীড়া, কিডনি ও লিভার রোগে আক্রান্ত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। শিশুদের ক্ষেত্রে ঝুঁকি আরো মারাত্বক।

বাজারে চলমান একমাত্র হোমমেড রসগোল্লা নামের পণ্যটি আগাগোড়াই ভেজাল প্রমাণিত হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বিশুদ্ধ খাবার আদালতে মামলা রজু করা হয়েছে। ঢাকা সিটি করপোরেশন (ডিসিসি) অঞ্চল-১ এর প্রধান পাবলিক অ্যানালিস্ট রাসায়নিক পরীক্ষার পর ডিসিসি স্বাস্থ্য বিভাগে প্রতিবেদন দাখিল করেন। এত দেখা যায়, এই রসগোল্লায় আদ্রতা আছে মাত্র ০.১৭ শতাংশ । ল্যাকটিক এসিডের অম্লতা ০.৯৮ শতাংশ। দুগ্ধ – চর্বির পরিমাণ ১০ শতাংশ থাকার কথা থাকলে ও তাতে পাওয়া গেছে মাত্র ১.০ শতাংশ। কঠিন বস্তুর উপস্থিতি পাওয়া গেছে ৯৫.৮৩ শতাংশ । তা ছাড়া পরীক্ষাগারে প্রমাণিত হয়েছে, এটি রসগোল্লা নয়, বরং শুকনো পাউডার জাতীয় একটি অদ্ভুত খাদ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *