হৃদস্পন্দনের ভাষা

হৃদস্পন্দনের ভাষা

বৈজ্ঞানিক জার্নালে প্রকাশিত গুরত্বপূর্ণ হেলথ টিপস-৩
হৃদস্পন্দনের ভাষা

ঘড়ির কাটার মতো আমাদের জীবন হৃদস্পন্দনের তালে তালে ক্রমেই এগিয়ে চলছে। এই স্পন্দই জানান দেয় যে, বেঁচে আছি। কিন্তু স্পন্দনের গতি-প্রকৃতির ওপর আমাদের শরীর ও গতি প্রকৃতির ওপর আমাদের শরীর ও মনের অনেক ক্রিয়া নির্ভর করে। যাদের হৃদপিন্ড অনিয়মিত ভাবে স্পন্দিত হয় তাদের অবসাদে পড়ার আশঙ্কা বেশি থাকে। এই অবসাদ থেকে আবার হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও বেড়ে যায়। এ থেকে হৃৎপিন্ড প্রদাহ , ভাল সমস্যা, এমনকি হার্ট অ্যাটাক পর্যন্ত হতে পারে।

তবে স্থুলতা, উচ্চ রক্তচাপ, উচ্চ কোলেষ্টেরল বা ডায়বেটিস থেকেও  এ সমস্যা হতে পারে। রোগীর মানসিক অবস্থার ওপরেও হৃদপিন্ডের সুস্থতা নির্ভর করে । এজন্য জার্মানিতে ১০ হাজার মানুষের ওপর গবেষণা চালিয়ে হার্টের সমস্যায় আক্রান্ত ৩০৯ জনকে নমুনা হিসেবে নেয়া হয়। এবার তাদের অবসাদের হার শূন্য থেকে ২৭ পর্যন্ত একটি স্কেলে পরিক্ষা করা হয়। সংখ্যা যত বড় অবসাদের হার তত বেশি । এজন্য এদের প্রত্যেকের হৃদস্পন্দনের গতিও পরীক্ষা করা হয়। দেখা গেছে যাদের হৃদস্পন্দন অনিয়মিত তাদের অবসাদ, বুকে ব্যাথা ইত্যাদি হয়ে থাকে। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে সবার আগে অবসাদ কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করতে হবে, এতে হার্টও সুস্থ হয়ে উঠবে। হার্টের চিকিৎসকরাও রোগীদের একই পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *