কম পরিমান শরীরচর্চাতেও বেশ ফল

কম পরিমান শরীরচর্চাতেও বেশ ফল

বৈজ্ঞানিক জার্নালে প্রকাশিত গুরত্বপূর্ণ হেলথ টিপস-৩
কম পরিমান শরীরচর্চাতেও বেশ ফল

নিষ্ক্রিয় যাঁরা, একেবারেই ব্যায়াম করেন না, এদের সঙ্গে যাঁরা কম শরীরচর্চা করেন তুলনা করলে অর্থাৎ যারা সপ্তাহে মাত্র ৯২ মিনিট ব্যায়াম করেছেন (দিনে মাত্র ১৫ মিনিট)। এদের মৃত্যু ঝুঁকি কমে ১০%, প্রতাশিত গড় আয়ু বাড়ে তিন বছর। প্রতিদিন নূন্যতম ১৫ মিনিট শরীরচর্চাকালের চেয়ে বাড়তি আরও ১৫ মিনিট বেশি শরীরচর্চা করলে মৃত্যু ঝুঁকি আরও ৪% কমে, ক্যানসারে মৃত্যু ঝুঁকি কমে আরও ১ %। সব বয়স ও জেন্ডারে এটি প্রযোজ্য। যাঁদের হৃদপিন্ডের ঝুঁকি , তাদের জন্যও । তুলনামূলক ভাবে নিষ্ক্রিয় লোকদের মৃত্যুঝুঁকি কম শরীরচর্চা লোকদের চেয়ে ১৭% বেশি।গবেষকদের মন্তব্য : সামান্য যে পরিমান ব্যায়ামের পরামর্শ আমরা দিচ্ছি, তা মেনে চললেও হৃদরোগ ডায়বেটিস ও ক্যানসারে মৃত্যুহার তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে হ্রাস করা সম্ভব। কম মাত্রা শরীরচর্চা ও অসংক্রামক ব্যাধির বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী লড়াইয়ে, কেন্দ্রীয় ভূমিকা গ্রহন করবে, কমে যাবে চিকিৎসাগত ব্যয় ও স্বাস্থ্যক্ষেত্রে ”বৈষম্য”।

মন্ত্রিয়াল হার্ট ইনস্টিটিউটের ও কুইবেক, কানাডার ইউনিভার্সিটি দ্যা মন্ত্রিয়ালের ডা. অনিল নিগাম ও মার্টিন জুনাউ বললেন, সপ্তাহের প্রায় প্রতিটি দিনমাত্র ১৫ মিনিট করে শরীরচর্চা করলে মৃত্যুঝুঁকি অনেক কমানো সম্ভব, এই তথ্যটিঅনেককে তাদের ব্যস্ত জীবনে সামান্য সময়ের শরীরর্চাকে অন্তভুক্ত করতে উৎসাহিত করবে। সরকার ও স্বাস্থ্য পেশাজীবিদের দায়িত্ব হলো এই সংবাদ জনগণের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া এবং সামান্য হলেও শরীরচর্চা করা। সক্রিয় জীবন যাপন করতে জনগনকে বোঝানোর ক্ষেত্রে প্রধান ভূমিকা রয়েছে এদের। এই গবেষণা থেকে স্পষ্ট, সামান্য পরিমাণ শরীরচর্চাও ভালো, বেশি করলে আরও ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *