শীতের সীম

শীতের সীম

শীতের সীম
শীতের সীম

সীম শীতকালীন সবজি। তবে স্বাদের সবজি হওয়ায় সারা দেশেই বানিজ্যিকভাবে চাষ হয়। বারডেম জেনারেল হাসপাতালের প্রধান পুষ্টিবিদ আখতারুননাহার বলেন, শিমে প্রচুর অ্যান্টি- অক্সিডেন্ট থাকে। আর ত্বকের রুক্ষতা ও শুষ্কতা প্রতিরোধে এই সবজি উপকারী। শিম কিভাবে রোগের বিরুদ্ধে লড়ে, আসুন জেনে নেওয়া যাক।

হৃদরোগীদের জন্য : যারা নিয়মিত শিম খান, তাঁদের হৃদরোগের ঝুঁকি কমে। এতে থাকা ফাইটোকেমিক্যালস হৃৎপিন্ডকে সুরক্ষা দেয়।

ক্যান্সার প্রতিরোধ : ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার অসাধারন এক ক্ষমতা আছে শিমে। এতে ইসোফ্লাবোনেস, ফাইটোস্টেরলসের মতো ক্যান্সার প্রতিরোধী উপাদান থাকে।

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে : এই সবজির পাঁচক আঁশ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে রাখে।

ওজন কমাতে : শিমের আঁশ দ্রুত ভরে ফেলে পাকস্থলী। এ ছাড়া রক্তে চিনি আসার পরিমানও কমিয়ে রাখে। শরীরকে শক্তি দেয়। অন্যদিকে ওজন বাড়তে বাধা দেয়।

ডায়বেটিস সুরক্ষায় : শর্করা ও চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার ক্ষমতা আছে।

অস্থিসন্ধির জন্য : হাড়ের সংযোগস্থলে সুরক্ষা দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *